সামান্য ১০হাজার টাকা পুঁজি নিয়ে শুরু করতে পারেন এই ৩ টি ব্যাবসা - পরিশ্রম করলে টাকার অভাব হবে না - business ideas in bengali

new business ideas in bengali

অল্প পুঁজিতে কাজ শুরু করে ধিরে ধিরে ভালো ইনকাম করতে চান ? (How to earn money?) এই লেখায় (business ideas in bengali) আলোচনা করবো এমন তিনটি ব্যাবসা যা শুরু করতে বেশি টাকা লাগবে না । ব্যাবসা দাঁড়িয়ে গেলে ইনকাম  খুব ভালো হবে । শুরুটা সহজ , বাকিটা আপনার পরিশ্রমের উপর । কোনো ম্যাজিক নয় , কোনো মিরাকেল নয় । তবে একটু কম প্রচলিত হওয়ার কারনে অনেক মানুষ এই ব্যাবসা সম্বন্ধে জানে না । আসুন জেনে নিই - কিভাবে মাসে একটা ভালো টাকা আয় করতে পারবেন ? (Earn money) । অনলাইন (Online business)  ও লোকাল ব্যাবসা (Local business)  দুটোই জানতে পারবেন । 


ব্যাবসার বুদ্ধি ১ঃ  চক বানানোর ব্যবসা 


হ্যাঁ , সাদা ও কালার চক বানানোর ব্যাবসার মার্কেট এখনও সারা ভারতে বেশ ভালো । পৃথিবীর উন্নত দেশগুলোতে চক ডাস্টার , ব্ল্যাকবোর্ড ব্যাবহারের চল প্রায় উঠে গেছে বললেই চলে , সাদা বোর্ড , ডিজিটাল স্ক্রীনে চলে ক্লাস । কিন্ত ভারতের প্রায় সব রাজ্যেই স্কুলের পরিকাঠামো উন্নত করা হলেও পড়ানোর সিস্টেমে খুব একটা উন্নতি করা হয়নি । বেশিরভাগ স্কুলেই এখনও ব্ল্যাকবোর্ড , চক আর ডাস্টারেই ক্লাস চলে যাচ্ছে । আগামী ১০ বছরেও এই পদ্ধতির চেঞ্জ হবে বলে মনে হয় না । এই কারনে মাত্র ১০,০০০ টাকা নিয়েই শুরু করতে পারেন চকের ব্যাবসা । 

চক প্রধানত প্লাস্টার ওফ প্যারিস দিয়ে তৈরি হয় । প্লাস্টার অফ প্যারিস  (Plaster of Paris) আসলে জিপ্সাম পাথরের গুড়ো । এর দাম খুবই সস্তা এবং লোকাল মার্কেট ঘুরলেই সস্তায় পেয়ে যাবেন । চক বানাতে যে ছাঁচ লাগে তাও কোলকাতার বিভিন্ন মার্কেটে পেয়ে যাবনে । লোহার বা কাঠের দোকানে অর্ডার দিয়ে নিজেও বানিয়ে নিতে পারেন । প্রচলিত চকের থেকে একটু আলাদা ডিজাইন করলে সহজে মার্কেটে ঢুকতে পারবেন । বাজারে সব থেকে কমা চকের দাম ১ বাক্স ২০ টাকা , আর ভালো চক ৬০ থেকে ১০০ টাকাতেও বিক্রি হয় । আপনার লোকালিটিতে ১০ টা হাইস্কুল ধরতে পারলে আপনার প্রাথমিক ভাবে মাসে ৬০০ থেকে ১০০০ প্যাকেট বিক্রি করতে পারবেন । ডাইরেক্ট সেল করলে ২০ টাকার প্যাকেটে ৭-৮ টাকা লাভ রাখা যায়  , তার মানে লোকাল স্কুল থেকেই আপনি মাসে ৭০০০ থেকে ৮০০০ টাকা ইনকাম করতে পারেন  স্কুল যত বেশি ধরবেন ইনকাম ততই বেশি হবে । 

করোনার প্রকোপ কমার দিকে , এখন সব জেলাতেই স্কুল খোলা শুরু করেছে , এই সময় এই চকের ব্যাবসা শুরু করার খুব ভালো সময় । 


ব্যাবসার বুদ্ধি ২ঃ কাগজের প্যাকেট ও খাম তৈরির ব্যাবসা 

সুনে মনে হতে পারে - এই ব্যাবসায় লাভ করা সম্ভব কি ? কিন্ত আশ্চর্য হয়ে যাবেন যখন ঠান্ডা মাথায় এই ব্যাবসার ফিউচার সম্বন্ধে ভাববেন । পরিবেশ সচেতনতার জন্য এবং সরকারী চাপে দোকান পাট - শপিং মলে প্লাস্টিকের প্যাকেট ব্যাবহার করা প্রায় বন্ধ হওয়ার দিকে । প্রচলন হয়েছে প্লাস্টিকের অল্টারনেটিভ কাগজ , পাট , কাপড়ের প্যাকেট । কিন্ত এত চাহিদা থাকা সত্ত্বেও মার্কেটে সাপ্লাই নেই । এই মার্কেট ধরতে পারেন আপনি । শুরু করতে পারেন সব থেকে সস্তা ইনভেসমেন্ট অর্থাৎ কাগজের প্যাকেটে দিয়ে শুরু করে । বাশপেপার বানানো প্যাকেট বা মোটা কাগজ ( ১৭০ জিএসেম ) দিয়ে তৈরি সুতোর হাতলের প্যাকেট তৈরি করতে কোনো মেশিন কিনতে হয় না । ১জন / ২জন কর্মী দিয়ে শুরু করে বা নিজেরাই শুরু করে দেওয়া যেতে প্যাকেট বানানো । ভালো মানের প্যাকেট অপেক্ষাকৃত কম দামে দিলে সহজেই মার্কেটে ঢুকে পড়া যাবে । কোলকাতার নিউ মার্কেটে অনেক জিনিস পেয়ে যাবনে । দমার্কেট বুঝতে পারলে ভালো মেশিন কিনে নিয়ে দৈনিক অনেক বেশি প্রোডাকশান করা সম্ভব হবে । প্রাথমিক ভাবে ৩০০০ - ৫০০০ পুঁজি নিয়ে ব্যাবসা শুরু করে মার্কেট বুঝে নিয়ে ১লাখ - ৫ লাখের বিভিন্ন মেশিন পাওয়া যায় । কাটিং , প্রেসিং , প্যাকেজিং , লেভেলিং - প্রয়োজনীয় মেশিন নিয়ে ব্যাবসা এগনো যেতে পারে । এই প্যাকেটে পিস অনুযায়ী লাভ রাখা কঠিন । ১০০ প্যাকেট/খামের একটা বান্ডিলে সব থেকে বেশি হলে ৮-১০ টাকা লাভ করা যায়  । মাসে ৫০০০ - ১০০০০ প্যাকেট বিক্রি করা খুব একটা কঠিন ব্যাপার নয় । তবে মনে রাখবেন - প্যাকেট ও খামের কোয়ালিটি ভালো না হলে মার্কেটে বেশিদিন টিকতে পারবেন না । 


ব্যাবসার বুদ্ধি ৩ঃ অনালাইনে সস্তায় বানান ফটো অ্যালবাম 


মনে করা হতো স্মার্ট ফোনের এই সময়ে প্রিন্টেড ফটোর মার্কেট আর থাকবে না কিন্ত ভালোকরে দেখলে বোঝা যায় ব্যাপারটা উলটে গেছে । লোকে ছবি তুলছে বেশী আর প্রিন্ট করছেও বেশি । আগামী ৫ বছরে ফটো প্রিন্টিং বিজনেস আরো বাড়বে বই কমবে না । কিন্ত একটা স্টুডিও খুলে বসতে অনেক খরচ লাগে । কম পুঁজিতে এই ব্যবসা করে বেশী লাভ করবেন কিভাবে ? (How to earn using online platform?) 

সমাধান দেবে অনালাইন প্ল্যাটফর্ম - বেশ কিছু ওয়েবসাইট আছে ( Vistaprint.com) ( Printvenue.com) (zoomin.com)  যেখানে আপনি ফটো প্রিন্ট , ভিজিটিং কার্ড বানানো , অ্যালবাম বানানো , ফটো ল্যামিনেশন করে বাধানো - সহ অনেক ছবি রিলেটেড কাজ করতে পারেন । সাইট গুলো অনেকের চেনা হলেও কিভাবে কাজ করতে হয় তা জানা না থাকায় অনেকে স্টেপ নেন না । 
আপনি যদি অল্প বিস্তর ফটোশপের (Photoshop) কাজ শিখে নিতে পারেন তাহলে কাস্টমারের ফটো এডিট করে সাজিয়ে নিয়ে এই ওয়েবসাইট গুলোর মাধ্যমে অর্ডার  করে কাস্টমারকে ডেলিভারী দিতে পারেন । বাজারে একটা ৬০ পেজের ওয়েডিং অ্যালবাম করাতে ৫০০০-২৫০০০ টাকা পর্যন্ত চার্জ করে সেখানে আপনি ভিস্টাপ্রিন্ট ওয়েবসাইট থেকে ২২০০-২৫০০ টাকায় এমন অ্যালবাম বানিয়ে নিতে পারবেন । অনায়াসে ৪৫০০ - ৭০০০ এ এই অ্যালবাম বিক্রি করতে পারবেন । বাড়ি থেকে অর্ডার ধরে বাড়ি বসেই ইনকাম করতে পারবেন । 

এই best business ideas in West Bengal - গুলো শেয়ার করে বেকার ভাই বন্ধুদের উপকার করুন । 



সামান্য ১০হাজার টাকা পুঁজি নিয়ে শুরু করতে পারেন এই ৩ টি ব্যাবসা - পরিশ্রম করলে টাকার অভাব হবে না - business ideas in bengali সামান্য ১০হাজার টাকা পুঁজি নিয়ে শুরু করতে পারেন এই ৩ টি ব্যাবসা - পরিশ্রম করলে টাকার অভাব হবে না - business ideas in bengali Reviewed by WisdomApps on নভেম্বর ১৬, ২০২১ Rating: 5

কোন মন্তব্য নেই:

Blogger দ্বারা পরিচালিত.