উইলিয়াম শেকসপীয়ারের সংক্ষিপ্ত জীবনী - william shakespeare biography

Biography of William Shakespeare 

শেকসপীয়রের লেখা পড়েননি বা তার নাম শোনেননি এমন শিক্ষিত মানুষ পৃথিবীতে খুব কমই আছেন । কিন্ত ভাবলে আশ্চর্য লাগে যে সমস্ত কালজয়ী নাটকের জন্য শেকসপীয়র এত বিখ্যাত , সেই নাটকগুলি বই আকারে প্রকাশ করতে কোনো প্রকাশকই রাজী হয়েছিলেন না । বিভিন্ন কষ্টের মধ্যে কেটেছিল শেকসপীয়র এর জীবন । আসুন জেনে নিই উইলিয়াম শেকসপীয়র এর জীবনী - 



 ‘শেকসপীয়র নিয়ে সর্বাধিক সংখ্যক গবেষণামূলক গ্রন্থ রচিত হয়েছে। ইংরেজি তথা বিশ্বসাহিত্যে উইলিয়ম শেকসপীয়র এমন এক সাহিত্যপ্রতিভা,কয়েকশত বৎসরের ব্যবধানেও যাঁর সম্পর্কে আগ্রহ বিন্দুমাত্র হ্রাস পায়নি। শেকসপীয়রকে কাছ ছাড়া করতে চান না এরকম মানুষের সংখ্যা বিশ্বের সর্বত্র বিস্তর। আদরণীয় শেকসপীয়রকে নিয়ে সর্বাধিক সংখ্যক গবেষণামূলক গ্রন্থ রচিত হয়েছে।

১৫৬৪ খৃষ্টাব্দের ২৬শে এপ্রিল অ্যাভন নদীর তীরবর্তী স্ট্রাটফোর্ডে শেকসপীয়র জন্ম গ্রহণ করেন। বাবার নাম জন শেকসপীয়র, মায়ের নাম মেরী আর্ডেন। তাঁদের সাতটি সন্তানের মধ্যে একমাত্র উইলিয়মই বেঁচে রইলেন সম্ভবত সাহিত্যে অমরতা লাভের উদ্দেশ্যে। 

শেকসপীয়রের প্রথম জীবন সম্পর্কে বিশেষ কিছু জানি না, যা নিয়ে গবেষণা করতে অনেকের জীবন আজও সমর্পিত। যেটুকু জানা যায়, তাতে এটা স্পষ্ট যে শেকসপীয়র এক সম্পন্ন পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা এক সময় কর্পোরেশনের শেরিফ নির্বাচিত হন। তিনি নাট্যামােদি মানুষ ছিলেন। নাটকের রচনাশৈলী কেমন হওয়া উচিত, এ সম্পর্কে তাঁর কিছু নিজস্ব পথনির্দেশও ছিল। সুতরাং ধরে নেওয়া যায়, উইলিয়ম শেকসপীয়রের হৃৎপদ্মে নাটককে প্রস্ফুটিত করাবার পিছনে তার বাবা জন শেকসপীয়রের কিছু অবদান ছিল। 

উইলিয়ম যে অনেক নাটক দেখবার সুযােগ পেতেন, সে ব্যাপারে সন্দেহের অবকাশ কম। কাব্য ও অভিনয়ের প্রতি তার টানটান আবেগ ও আগ্রহ গড়ে ওঠে। বাবার দস্তানার ব্যবসা দেখাশুনা করতেন উইলিয়াম। এ রকম একটা গল্প প্রচলিত আছে যে, প্রথম যৌবনে তিনি একবার হরিণ চুরি করেছিলেন। তারপর ধরা পড়ে যাবার ভয়ে লন্ডনে পালিয়ে আসেন। সেখানে এক ঘােড়ার আস্তাবলে চাকরি নেন। অবশ্য এ সমস্ত কাহিনীর পিছনে প্রকৃত ঘটনা কতটা, তা নির্ণয় করা কঠিন। 

আঠারাে বছর বয়সে শেকসপীয়রের বিয়ে। স্ত্রীর নাম অ্যানা হ্যাথাও, যিনি আবার বয়সে ছিলেন আট বছরের বড়াে। বিয়ের ছ'মাসের মধ্যেই তার প্রথমা কন্যা সুশানার জন্ম। এরপর তাদের যমজ পুত্র সন্তানের জন্ম হয়। নাম, হ্যানেট ও জুডিথ। লন্ডনে জীবিকার খাতিরে শেকসপীয়র এক নাটকের দলে যােগ দেন। তাঁর কাজ ছিল, দলের খুঁটিনাটির দিকে নজর রাখা ও প্রয়ােজনে নাটক লেখা। সেই যুগে নাট্যকারদের তেমন একটা সম্মান ছিল না। যে সমস্ত নাট্যদলের সঙ্গে তিনি কাজ করেন , তাদের মধ্যে লর্ড চেম্বারলেনের নাটকের দলের নাম উল্লেখযোগ্য । 

লন্ডনে অবস্থান কালের প্রথম দিকে শেকসপীয়রের দুটো কথিকার বই প্রকাশিত হয়। দুটোই তিনি নিজের খরচে ছেপেছিলেন।

১৫৯৪ খৃষ্টাব্দে প্রকাশিত হয় ‘দ্য রেপ অফ লুক্রোসি’-যা তাকে কবি হিসেবে প্রতিষ্ঠা দেয়। কিন্তু বিচিত্র ব্যাপার হল, শেকসপীয়রের অসাধারণ সমস্ত নাটকগুলি প্রকাশ করতে কোনও প্রকাশকই ইচ্ছুক ছিলেন না। তারা ওই নাটকগুলির অসাধারণত্ব ও গুরুত্ব অনুধাবনে ব্যর্থ হন। ফলে জীবিতকালে শেকসপীয়র তার একটি নাটক প্রকাশিত অবস্থায় দেখে যেতে পারেননি। একজন কবি হিসেবেই তাঁর মােটামুটি একটা পরিচিতি। তবে নাট্যদলের জন্য মঞ্চসফল নাটক লিখে শেকসপীয়র কিছু আর্থিক স্বচ্ছলতা অর্জন করেন এবং লন্ডনের গ্লোব থিয়েটারের আংশিক মালিকানা কিনে নেন।

ব্যক্তিগত জীবনে নিরবচ্ছিন্ন সুখ উইলিয়াম শেকসপীয়র পাননি। তাঁর পুত্র হ্যানেট মাত্র এগারাে বছর বয়সে মারা যায়। পুত্রের মৃত্যুর পর স্ট্রটফোর্ডে ফিরে আসেন শেকসপীয়র। সেখানে তিনি একটি প্রকাণ্ড বাড়ি ক্রয় করেন। কন্যাদের বিয়ে দেন। 

২৩শে এপ্রিল, ১৬১৬ খৃষ্টাব্দ, উইলিয়ম শেকসপীয়র ইহলােক ত্যাগ করেন। তার লেখা নাটকগুলি প্রকাশিত হতে থাকে তার মৃত্যুর পর ১৬২৩ খৃষ্টাব্দ থেকে। তাঁর নাটকের সংখ্যা চৌত্রিশটি। তার এই নাটকগুলিকে তিন টি শ্রেণীতে বিভক্ত করা যায়—(১) বিয়ােগান্ত নাটক (২) ঐতিহাসিক নাটক এবং (৩) হাস্যরসাত্মক নাটক।

বিয়ােগান্ত নাটকের মধ্যে রয়েছে রােমিও জুলিয়েট, ম্যাকবেথ, টাইটাস এড্রোনিকাস, হ্যামলেট, ওথেলাে, কোরিও লানাস, টাইমস অফ এথেন্স ;

ঐতিহাসিক নাটকের পর্যায়ে পড়ে জুলিয়াস সিজার, কিং লিয়ার, অ্যান্টনী ও ক্লিওপেট্রা, হেনরি দ্য সিকস্থ, কিং জন, তৃতীয় রিচার্ড, দ্বিতীয় রিচার্ড;

হাস্যরসাত্মক নাটকরূপে বিবেচিত মাচ এডাে এবাউট নাথিং, দ্য কমেডি অফ এররর্স, অ্যাজ ইউ লাইক ইট, দ্য টেম্পেস্ট, দ্য নােবল কিংসমেন, অল ওয়েল দ্যাট এন্ডস ওয়েল, সিম্মােলিন, দ্য মেরী ওয়াডস অফ উইন্ডসর, টুয়েলভথ নাইট, দ্য উইন্টার্স টেল, মিড সামার নাইটস ড্রিম, দ্যা টেমিং অফ দ্য শু, দ্য জেন্টলমেন অফ ভেরােনা, ট্রয়লাস অ্যান্ড গ্রোমিডা ইত্যাদি। শেকসপীয়র একশ’ চুয়ান্নটি সনেট রচনা করে যান।

এত বড় প্রতিভাবান পুরুষ। অথচ তার সম্পর্কে অনেক তথ্যই আজও। আমাদের অজানা।

তার জীবিতকালে প্রকাশকরা যে তার রচনা প্রকাশে অনাগ্রহী ছিলেন, এটাও লজ্জার।

উইলিয়াম শেকসপীয়ারের সংক্ষিপ্ত জীবনী - william shakespeare biography উইলিয়াম শেকসপীয়ারের সংক্ষিপ্ত জীবনী -  william shakespeare biography Reviewed by WisdomApps on মে ১৯, ২০২১ Rating: 5

কোন মন্তব্য নেই:

Blogger দ্বারা পরিচালিত.